Class 6 Science Assignment

Class 6 Science Assignment Answer 2022

This year high school final exam has postponed. And also, the HSC exam result will publish by checking JSC & SSC result. This decision was taken by education prime minister Dr. Dipu Moni.

The pandemic COVID-19 virus increases very much. That’s why the education prime minister doesn’t want to get in trouble with every student. But, they create some rules to move on to the next class.

All the students need to submit an assignment paper for a single subject. And the board will give every week’s assignment syllabus. Now, they publish their 4th-week science assignment syllabus.

A better science assignment can help to get a good mark on this subject. That’s why we make a different science assignment paper for you. If you don’t understand how to write a better science assignment.

Then you can collect our class 6 science assignment from the below part. We made the assignment answer with the science school teacher. So, get the answer & write it fast.

Class 6 Science Assignment Answer 2022

Do you want to get the 4th-week science assignment syllabus?. Here, we mention the science assignment syllabus. You should collect it from our post. The education board releases the 4th-week syllabus yesterday night.

So, you need to complete the class 6 science assignment syllabus. Then write an assignment with all question answers. If you have any questions about the science syllabus. Then you can ask us. We will reply very soon.

Class 6 Science Assignment Answer 2022

Don’t worry about the Class 6 science assignment answer. Because we already solve all questions answer. You just need to get it from here. Before writing the assignment answer. You should read the assignment syllabus. Then you will automatically understand. Which question answer you need to answer. So, we mention all question answer get it fast.

ষষ্ঠ (৬ষ্ঠ) শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর (১০০% সঠিক) Class 6 Assignment Answer 2022

সপ্তম (৭ম) শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর (১০০% সঠিক) Class 7 Assignment Answer 2022

অষ্টম (৮ম) শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর (১০০% সঠিক) Class 8 Assignment Answer 2022

নবম (৯ম) শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর (১০০% সঠিক) Class 9 Assignment Answer 2022

সপ্তম অধ্যায়

পদার্থের বৈশিষ্ট্য এবং বাহ্যিক প্রভাব
পাঠ ১-৩:
পদার্থের বৈশিষ্ট্য শ্রেণীবিন্যাসে
পাঠ: ৪-৬:
ধাতু ও অধাতুর বৈশিষ্ট্য
পাঠ ৭-৮:
ধাতু ও অধাতুর বিদ্যুৎ পরিবাহিতা

সপ্তম অধ্যায়ঃ
পদার্থের বৈশিষ্ট্য এবং বাহ্যিক প্রভাব
পাঠ ৯-১১:
গলনাঙ্ক ও স্ফুটনাঙ্ক

ক) বিদ্যুৎ পরিবাহী ও অপরিবাহী পদার্থের নাম লিখ।

খ) বিদ্যুৎ পরিবহনে তামার তার ব্যবহারের কারণ কী?

গ) উদ্দীপকের ১ম চিত্রে মােম গলে পড়ার পরবর্তী অবস্থা ব্যাখ্যা কর।

ঘ) চিত্রের পদার্থ দুটির গলনাংক ও হিমাংক কি একই? পাঠ্যপুস্তকের আলােকে বিশ্লেষণ কর।

ক প্রশ্নের উত্তর 

বিদ্যুৎ পরিবাহী পদার্থ: সাধারণত ধাতু সমূহই বিদ্যুৎ পরিবাহী পদাথ।

যেমন:

  • তামার তার
  • রূপা
  • সােনা
  • অ্যালুমিনিয়াম
  • পারদ ইত্যাদি।

বিদ্যু অপরিবাহ পদার্থ: সকল অধাতুর বিদ্যুৎ অপরিবাহী বা বিদ্যুৎ কুপরিবাহী পদার্থ।

যেমন:

  • কাঠের টুকরা
  • প্লাষ্টিক
  • কাঁচ
  • পলিথিন
  • রাবার ইত্যাদি।

খ প্রশ্নের উত্তর 

বিদ্যুৎ পরিবহনে তামার তার ব্যবহারের কারণঃ- তামা সহ আরও অনেক ধাতু আছে যেগুলাে বিদ্যুৎ সুপরিবাহী। কিন্তু তা সত্ত্বেও বিদ্যুৎ পরিবহনে তামার তার ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তার নির্দিষ্ট কিছু কারণ আছে। নিম্নে তা উল্লেখ করা হলোঃ

  1. তামা বিদ্যুৎ সুপরিবাহ।
  2. তামা দামে সস্তা।
  3. তামা সহজলভ্য।
  4. তামা সহজ কাটা যায় বা জোড়া লগানাে যায়।

তামা ছাড়াও অ্যালুমিনিয়াম বিদ্যুৎ সুপরিবাহী কিন্তু তাতে অ্যালুমিনিয়াম অক্সাইড তৈরি হয় যা পরবর্তীতে বিদ্যুৎ প্রবাহে বাঁধা দেয়। রূপাও বিদ্যুৎ সুপরিবাহী কিন্তু তা অনেক দামি। স্টিল অনেক শক্তিশালী কিন্তু এর বিদ্যুৎ পরিবাহিতা কম। তাই সবদিক থেকে বিচার করলে বৈদ্যুতিক তারে তামার ব্যবহারিই সুবিধাজনক।

গ প্রশ্নের উত্তর 

উদ্দীপকের ১ম চিত্রে মােম গলে পড়ার পরবর্তী অবস্থা ব্যাখ্যা: মােমবাতি জ্বালানাে হলে মােমবাতির একটি অংশ পুড়ে আলাে দেয় আর আরেকটি অংম আগুনে গলে মােমবাতির গা বেয়ে পড়তে থাকে, যা কিছুক্ষণ পর আবার জমে কঠিন মােমে পরিণত হয়। তরল মােম থেকে কঠিন মােম হওয়ার প্রক্রিয়া হলাে শীতলীকরণ। শুধু মােম নয় মােমের ন্যায় প্রতিটি তরল পদার্থের ক্ষেত্রেই এমনটি হতে পারে।

ঘ প্রশ্নের উত্তর 

চিত্রের পদার্থ দুটির গলনাংক ও হিমাংক একই কিনা।

বিশ্লেষণঃ– ৫৭ ডিগ্রী সেলসিয়াসই হলাে মােমের হিমাংক। কেননা ৫৭ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রায় মােম জ্বলতে শুরু করে। আবার মােমের গলনাংকও হয় ৫৭। ডিগ্রী তাপমাত্রায়। অথ্যাৎ একই বস্তুর গলনাংক এবং হিমাংক একই৷ কিন্তু পানির হিমাংক শূন্য ডিগ্রি সেলসিয়াস। তাহলে পানির গলনাংকও কিন্তু শূন্য ডিগ্রী সেলিসিয়াস। কোন একটি বস্তুর তাপমাত্রা যদি হিমাংকের উপরে থাকে এবং তা পরিপার্শ্বিক তাপমাত্রার চেয়ে বেশি হয়, তবে পারিপার্শ্বিক তাপমাত্রায় বস্তুটিকে রেখে দিলে তা ধীরে ধীরে তাপ হারাতে থাকে। ফলে এর তাপমাত্রা কমতে থাকে। এবং তাপমাত্রা যখন হিমাংক চলে আসে তখন এটি কঠিনে পরিণত হয়।

মন্তব্যঃ-একই বস্তুর গলনাংক এবং হিমাংক একই হ্য। উদ্দীপকের বস্তু দুইটি আলাদা। তাই বস্তু দুইটির হিমাংক ও গলনাংক একে অন্যটির থেকে আলাদা। যেমন আমরা দেখেছি যে মােমের চালনাংক এবং হিমাংক ৫৭ ডিগ্রী সেলসিয়াস সেখানে পানির গলনাংক এবং হিমাংকের তাপমাত্রা শূন্য (০) ডিগ্রী সেলসিয়াস। সুতরাং উদ্দীপকের বস্তু দুইটর গলনাংক এবং হিমাংক আলাদা।

Conclusion

We hope that it will help you to solve your science assignment questions. And you will get good marks in a science subject. You should share it with friends. Because they waiting to get the science assignment answer. If you have any questions. Then comment on the below section. We will reply as soon as possible.

Class 8 Assignment Answer 2022

Class 9 Assignment Answer 2022

Class 7 Assignment Answer 2022

Class 6 Assignment Answer 2022

Leave a Comment

Your email address will not be published.